Uncategorized

।।এবারের বাজেট আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ বাজেট ॥

।।এবারের বাজেট আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ বাজেট ॥ অর্থমন্ত্রী ॥ নিত্যপণ্যের দাম বাড়বে না।।

—————————————————–

        ।।দিঘলিয়া ওয়েব ব্লগ।।

     ০৩/০৬/২০১৭ ১১:৫৬ এ. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ জনকল্যাণে ধারাবাহিকভাবে উচ্চাভিলাষী বাজেট দেয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, এবারের বাজেট আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ বাজেট। বাজেট বাস্তবায়নে সরকারের দক্ষতা অন্য যে কোন সময়ের চেয়ে এখন অনেক ভাল দাবি করে সমালোচনাকারীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, গত আট বছরে বাজেটের আকার পাঁচগুণ বেড়েছে। ওই সময় বেড়েছে সরকারের আয়ও। তাহলে বাস্তবায়নের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন থাকতে পারে? তিনি বলেন, ১৫ শতাংশ ভ্যাট কার্যকর করা হলেও জিনিসপত্রের দাম বাড়বে না। কারণ, অনেক পণ্যে ভ্যাট ছাড় দেয়া হয়েছে। ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ভ্যাট বাড়লে শিক্ষাক্ষেত্রে বৈষম্য তৈরি করবে না।

শুক্রবার বিকেল ৩ টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রস্তাবিত ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। আগামী অর্থবছরের বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়া শুনে প্রশ্নের উত্তর দেন অর্থমন্ত্রী। মূলমঞ্চে অর্থমন্ত্রীর ঠিক ডান পাশে বসেছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। আর মুহিতের বাঁয়ে বসেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এবং অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। মূল মঞ্চেই আরেকটি টেবিলে বসেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর ফজলে কবির, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, ইআরডি সচিব কাজী শফিকুল আজম এবং পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মোঃ জিয়াউল ইসলাম। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম ছাড়াও উর্ধতন সরকারী কর্মকর্তারা সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। প্রসঙ্গত, উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে নেয়ার স্বপ্ন সামনে রেখে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে নতুন অর্থবছরে ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে চালের দাম, নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর, মূল্যস্ফীতি, ব্যাংক আমানতের ওপর আবগারি শুল্ক, রেমিটেন্স, বিনিয়োগ ও বিদ্যুত পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর জানতে চান সাংবাদিকরা। চালের দাম বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, হাওর এলাকায় অকালবন্যার কারণে চালের দাম বেড়ে গেছে। তবে আমাদের স্টক যথেষ্ট ভাল, তাই চালের দাম আর বাড়বে না। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। তিনি বলেন, এবার সাতটি জেলার হাওড় এলাকায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া আবহাওয়াজনিত কারণেও ধানের ফলন হয়নি। এসব কারণে সরকার ভিয়েতনাম থেকে চাল আমদানির চুক্তি করেছে। একই সঙ্গে ওএমএস কার্যক্রম চালু, ফেয়ার প্রাইসে ১০ কেজিতে চাল বিক্রিসহ সরকারী অন্যান্য কার্যক্রম চালু রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, আবার আউশ ফিরিয়ে আনার কার্যক্রম গ্রহণ করেছে সরকার। আশা করছি, সরকারী এসব উদ্যোগের ফলে ভবিষ্যতে চালের দাম আর বাড়বে না।

ব্যাংকে লাখ টাকার বেশি

রাখলেই আবগারি শুল্ক

সবচেয়ে বেশি প্রশ্ন ও আলোচনা হয় ব্যাংক আমানতের ওপর আবগারি শুল্ক ইস্যুতে। তবে অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ব্যাংকে যাদের এক লাখ টাকা রাখার সামর্থ্য আছে তারা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সম্পদশালী বলেই বাজেটে তাদের ওপর বাড়তি কর আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। তারা বাড়তি ভারটা বহন করতে পারবেন, সমস্যা হবে না। বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে মুহিত বলেন, ব্যাংকে লাখ টাকার বেশি থাকলে বাড়তি কর দিতে হবে।

প্রস্তাবিত বাজেটে, বছরের যে কোন সময় ব্যাংক হিসাবে এক লাখ টাকার বেশি লেনদেনের ওপর আবগারি শুল্ক বিদ্যমান ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০০ টাকা করা হয়েছে। নতুন বাজেটে আবগারি শুল্ক আরোপের সীমা ২০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ টাকা করা হয়েছে। অর্থাৎ আগে বছরের যে কোন সময় ২০ হাজার টাকা লেনদেনে শুল্ক আরোপ করা হতো, এখন ১ লাখ টাকা পর্যন্ত লেনদেনে শুল্ক আরোপ করা হবে না।

নতুন বাজেট প্রস্তাবে ২০ হাজার টাকা থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত লেনদেনে বিদ্যমান ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক মওকুফ করা হয়েছে বলে এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান জানান। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ১ লাখ টাকার লেনদেনে এখন ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক আরোপ করা আছে। এখন সেটা আর দিতে হবে না।

অর্থমন্ত্রী মুহিত বলেন, যাদের টাকা এক লাখের উপরে থাকবে কেবল তাদের ওপরই একটা কর ধার্য করেছি। বড় লোকের ক্ষেত্রে আমাদের করটা ছিল, কিন্তু যারা মিড লেভেলে ছিল তারা এর অন্তর্ভুক্ত ছিল না। একলাখ টাকার নিচে যারা আছেন তাদের ভার থেকে মুক্ত করাই যথেষ্ট।

নতুন বাজেটে ব্যাংক এ্যাকাউন্টে লেনদেন ১ লাখ টাকার উর্ধে হতে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিদ্যমান ৫০০ টাকার পরিবর্তে ৮০০ টাকা, ১০ লাখ টাকার উর্ধ হতে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত ১ হাজার ৫০০ টাকার পরিবর্তে ২ হাজার ৫০০ টাকা, ১ কোটি টাকার উর্ধ হতে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত ৭ হাজার ৫০০ টাকার পরিবর্তে ১২ হাজার টাকা এবং ৫ কোটি টাকার উর্ধে বিদ্যমান ১৫ হাজার টাকার পরিবর্তে ২৫ হাজার টাকা আবগারি শুল্ক প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। তবে বৃহস্পতিবার বাজেট বক্তৃতার পর ব্যাংক লেনদেনে আবগারি শুল্ক আরোপের ভিন্ন হার উল্লেখ করে এনবিআরের এক প্রজ্ঞাপন জারি করলে সংশয়ের সৃষ্টি হয়। সংবাদ সম্মেলনে এনবিআর চেয়ারম্যান বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, এক্ষেত্রে অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবিত বাজেটে আবগারি শুল্ক আরোপের হার চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে।

কিছু লোক চাল-চিনির দাম বাড়াচ্ছে

বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, বাজারে চালের সঙ্কট নেই। তারপরও চাল ও চিনির দাম বাড়ানো হচ্ছে। কিছু লোক অতি উৎসাহী হয়ে এ কাজ করছে। শিল্পমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ীরা রোজার মাসে মুনাফা ছাড় দেয়। আর বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা রোজার মাসকে মুনাফা লাভের মোক্ষম সময় ধরে নেয়। আমাদের দেশে ব্যবসায়ীদের দেশপ্রেমের অভাব আছে। এর জন্য আইন করতে হবে। এক্ষেত্রে গণমাধ্যমের সহযোগিতা প্রয়োজন।

সঞ্চয়পত্রের সুদের বিষয়টি নিয়ে শীঘ্রই সিদ্ধান্ত

সঞ্চয়পত্রের সুদ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, শীঘ্রই সঞ্চয়পত্রের সুদ সংক্রান্ত একটি বৈঠক করা হবে। ওই বৈঠকে সুদের বিষয়টি রিভিউ হতে পারে।

বেসরকারী বিনিয়োগ বাড়ছে

গত কয়েক বছরে সরকারী বিনিয়োগের পাশাপাশি বেসরকারী খাতের বিনিয়োগ বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, বেসরকারী খাতে বিনিয়োগ বাড়ছে না এটা ঠিক নয়। দেশের অর্থনীতির ৮০ শতাংশ বেসরকারী খাতে আর সেখানে সরকারের হাতে রয়েছে মাত্র ২০ ভাগ। তাই বেসরকারী বিনিয়োগ বাড়াতে সরকার সব ধরনের উদ্যোগ নিচ্ছে। বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানে সবচেয়ে বেশি জোর দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, মোট বাজেটের প্রায় ৫৪ শতাংশ ব্যয় হবে দারিদ্র্য বিমোচনে।

জ্বালানি তেলের দাম কমছে না

গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে আবার তেলের দাম সমন্বয় হচ্ছে না এ প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ঘোষণাই ছিল ২০১৮ সালের মধ্যে গ্যাসের দাম বাড়বে। আর এ মুহূর্তে তেলের দাম সমন্বয় করার কোন সিদ্ধান্ত আসছে না। এটা বিবেচনাধীন রয়েছে।

রেমিটেন্স কমেনি

অর্থমন্ত্রী জানান, রেমিটেন্স কমেনি। আগামী ছয় মাসের মধ্যে রেমিটেন্সের বিষয়টি ঠিক হয়ে যাবে।

রাজনীতির নামে শৃঙ্খলাভঙ্গের দিন শেষ

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, রাজনীতির নামে আইন-শৃঙ্খলাভঙ্গের দিন শেষ। জ্বালা-পোড়াও করে এদেশে আর কোন রাজনীতি হবে না। এই অপরাজনীতির দিন শেষ হওয়ায় দেশের অর্থনীতি এগিয়ে যাচ্ছে।

এশিয়ান টাইগার

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের জিডিপি গ্রোথ এক বিস্ময়। বাংলাদেশ হচ্ছে এশিয়ান টাইগার। বিদেশী গণমাধ্যমে বাংলাদেশের এ সাফল্য বড় করে প্রচার হয়। তিনি বলেন, ৭ দশমিক ৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আশা করছি, আগামী বাজেটে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, বিদেশীরা যেমন এদেশে বিনিয়োগ করতে আসছেন, আবার আমাদের এখান থেকে বিদেশেও বিনিয়োগ করা হচ্ছে। আফ্রিকা, ভিয়েতনামসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এখন বাংলাদেশী উদ্যোক্তারা বিনিয়োগ করছেন।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s